Friday, April 26, 2013

Savar Tragedy - Rana plaza

  1. শেষ পর্যন্ত না ফেরার দেশেই চলে গেলেন শাহাদত। দু’দিন লড়াই করার পর শুক্রবার সকালে তিনি হেরে গেলেন। আর শাহাদতের মৃত্যুর পর ভেঙে পড়েছে সুরুজ। যাকেই পাচ্ছেন তারই হাতে পায়ে ধরে আকুতি জানাচ্ছেন তাকে বাঁচাতে। স্বেচ্ছাসেবক জিরাব তালবাগ জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আব্দুল আহাদ বাংলানউজকে বলেন, “৯টা ৫ মিনিটে আমি তাকে দেখে এসেছি। তার ডান পা পিলারের নিচে আটকে আছে। আমি গেলে আমার পা জড়িয়ে ধরে উদ্ধারের জন্য কান্নাকাটি করে। আমার পা ছাড়তে চাইছিল না। বলছিল, ‘অনেকের পা ধরেছি কেউ ফিরে গিয়ে আর উদ্ধার করতে আসেনি। আমাকে আর মিথ্যা সান্ত্বনা দিয়েন না। ভাই সত্যি সত্যিই আমাকে নিয়ে যাইয়েন’।”
  2. ফায়ার সার্ভিসের সমন্বয়কারী মেজর জিহাদ জানিয়েছেন - বড় অক্সিজেন সিলিন্ডার আনতে পারলে পাইপ দিয়ে ভিতরে দেয়া যেত। আটকা পড়া জীবিতদের সকাল পর্যন্ত বাঁচিয়ে রাখার জন্য খুব সহায়ক হতো। বড় হাসপাতালগুলোতে এধরনের সিলিন্ডার থাকে।
  3. মেয়েটি বলেছিল " ভাই রে আমার একটা পা কেটে বের কর , আমি বাঁচতে চাই ।" পড়ে তার দুটো পা ই কেটে তাকে বের করা হয় । এখন সে এনাম মেডিকেল এর আই সিউ তে আছে । তার জ্ঞান এখনো ফিরেনি । জানি না তার জ্ঞান ফিরলে সে কি করবে !!!
"বাংলাদেশের সামনে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের একটা খাত নতুন করে তৈরি হলো । এই খাতকে যদি কাজে লাগানো যায় আমাদের উন্নতি আর কেউ ঠেকাতে পারবে না ।
লাশ রপ্তানী খাত !

লাশের কাঁচামাল আমাদের দেশে সহজলভ্য... অফুরন্ত ...। কত রকমের লাশ আপনার চাই ?? ফ্যাক্টরিতে আগুনে পুড়ে কয়লা হওয়া লাশ, ভবন ধসে পড়া থেতলানো লাশ, লঞ্চ ডুবিতে ফুলে ঢোল হওয়া লাশ, ফ্লাইওভার ধসে লুলা হয়ে যাওয়া লাশ, রাজনৈতিক সহিংসতায় চাপাতির কোপ খাওয়া লাশ, সড়ক দুর্ঘটনায় ভেটকে যাওয়া লাশ............???

সব ধরনের লাশ আমাদের মজুদ আছে...নো টেনশন ! শুধু অর্ডার করুন... সময়ের আগেই পৌছে যাবে লাশ ।"